19.1 C
New York
Monday, May 27, 2024
spot_img

তাবদাহ মোকাবেলা করুন

হাঁটি হাঁটি পা পা করে এগিয়ে আসছে গ্রীষ্মকাল।তার সাথে বাড়ছে তাপমাত্রা আর গরম।বৈশ্বিক উষ্ণতা বাড়ার পাশাপাশি বাড়ছে তাপমাত্রা জনিত মৃত্যুও।হিট স্ট্রোক,হিট রাশ,হিট ক্র্যাম্পের মতো রোগে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে।প্রতিবছর গ্রীষ্মে হিট স্ট্রোক এবং প্রছন্ড তাবদাহে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে।মার্কিন স্বাস্থ্য সংস্থার মতে যুক্তরাষ্ট্রে আনুমানিক ১২২০ জন প্রতি বছর প্রচণ্ড গরমে মারা যায়।তবে একটু সচেতন থাকলে তাপজনিত মৃত্যু এবং অসুস্থতা প্রতিরোধ করা যায়।

তাবদাহ কী? :স্বাভাবিকের চেয়ে অতিরিক্ত কিংবা মারাত্বক গরম অনুভূত হলে তাকে তাবদাহ বলে। বায়ুমন্ডলে যখন শরীরের চেয়ে তাপমাত্রা বেশি হয় তখন আমাদের গরম অনুভূত হয়।বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বেড়ে গেলে বা আদ্রতা বেড়ে গেলে গরম বেশি অনুভূত হয়।অনেক ক্ষেত্রে বায়ুর তাপমাত্রা স্বাভাবিক থাকলেও আদ্রতা বেশি থাকার কারণে প্রচন্ড গরম অনুভূত হয়।তাই তাবদাহ
নির্ভর করে তাপমাত্রা এবং আদ্রতার উপর।

যেসব জায়গায় ঝুঁকিপূর্ণ: নির্মাণাধীন যেকোনো বিল্ডিং,স্থাপনায় উচ্চতাপের ঝুঁকি থাকে।আবার কলকারখানায়ও মারাত্মক তাবদাহ হতে পারে।উচ্চতাপপ্রবাহ হতে পারে গাড়িতেও।
গাড়ির বাইরের তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রী সেলসিয়াস হলে ভেতরের তাপমাত্রা হতে ঘন্টায় তিনগুণের বেশি! বিশ মিনিটে গাড়ির ভেতরে তাপমাত্রা বেড়ে হতে পারে ১০৯ ডিগ্রী এবং ৪০ মিনিটে ১১৮ ডিগ্রী ও ৬০ মিনিটে হতে পারে প্রায় ১২৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস।

কাদের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে তীব্র তাবদাহে তাপমাত্রা জনিত সমস্যায় বেশি ভুগে যারা-
শিশু
বয়স্ক ব্যাক্তি
যাদের ওজন বেশি
প্রতিবন্ধি এবং কলকারখানায় কাজ করা শ্রমিকরা
যারা অধিক পরিশ্রম করে
তাছাড়া তাপমাত্রা জনিত রোগে পুরুষরা মহিলাদের তুলনায় বেশি আক্রান্ত হয়।

তাপপ্রবাহ সতর্কতা: আবহাওয়ার খবরে তাবদাহ সম্পর্কে সতর্কতা জারি করে কিছু শব্দ ব্যবহার করা হয়।

হিট আউটলুক:তিন থেকে সাত দিনের মধ্যে কোনো অতিরিক্ত তাপপ্রবাহের ঘটনার জন্য পূর্বাভাস হিসেবে ব্যবহৃত হয় ‘হিট আউটলুক’।
হিট ওয়াচ:১২ থেকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে অতিরিক্ত তাপপ্রবাহের ঘটনার পূর্বাভাস জারি করা হয় ‘হিট ওয়াচ’ শব্দে।
হিট ওয়ার্নিং:অত্যন্ত বিপদজনক তাপপ্রবাহের ঘটনার সতর্কতা জারি করতে ‘হিট ওয়ার্নিং’ জারি করা হয়।

ঝুঁকি এড়াতে করণীয়:
১) হালকা ওজনের, হালকা রঙের, ঢিলেঢালা পোশাক পরতে হবে।
২) বাসাবাড়িকে যথাযম্ভব ঠান্ডা রাখতে হবে।শীতাতপ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা করা যেতে পারে।চুলা যতো কম ব্যবহার করা যায় ততো উত্তম।
৩) প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে।ঘরের পোষা প্রানী সহ সকলকে যথাসম্ভব তরল খাবার দিতে হবে।চিনিযুক্ত পানীয় থেকে বিরত থাকতে হবে।
৪) লবণ ও খনিজ জাতীয় খাবার খেতে হবে।
৫) উচ্চ তাপমাত্রাপ্রবণ জায়গা,গাড়ি এড়িয়ে চলতে হবে।
৬) সানস্ক্রিন ব্যবহার করা যেতে পারে।

আপনি কি জানেন? :
১) গ্রামের তুলনায় শহরে তাপজনিত অসুস্থতার ঝুঁকি বেশি।
২) বেশিরভাগ তাপজনিত অসুস্থতা অতিরিক্ত ব্যায়ামে এবং তা নির্গমনের ফলে হয়।
৩) রোদে পুড়ে যাওয়া ত্বক শরীরের অতিরিক্ত তাপ নির্গমনের ক্ষমতা নষ্ট করে দিতে পারে।
৪) ২০১১ সালে অতিরিক্ত তাপদাহে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৬৫৮ জন মারা গিয়েছিল।

CDC অবলম্বনে

Facebook Comments Box

বিষয় ভিত্তিক পোস্ট

শহীদুল ইসলামspot_img

সাম্প্রতিক পোস্ট